অমরসঙ্গী, স্ত্রী’র মৃত্যুর খবর পেয়েই ট্রেনের সামনে ঝাঁপ স্বামীর!

অমরসঙ্গী, স্ত্রী'র মৃত্যুর খবর পেয়েই ট্রেনের সামনে ঝাঁপ স্বামীর!
 ডেস্ক:স্ত্রীর মৃত্যুর খবর শুনে চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিলে আত্মহত্যা করেছেন স্বামীও। সোমবার এই অস্বাভাবিক ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নশিপুর এলাকায়।পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় ১৭ বছর আগে চুনাখালির বাসিন্দা নমিতাকে বিয়ে করেন কলকাতার বাসিন্দা রাজমিস্ত্রী ভীম মণ্ডল। তাদের সংসারে এক ছেলে (১৬) ও এক মেয়ে (১৪) রয়েছে।এমনিতে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে তেমন ঝগড়াঝাটি ছিল না। তবে ভীম মাঝেমধ্যেই মদ খেয়ে মাতাল হয়ে বাড়ি ফিরতেন। এটা একদমই পছন্দ ছিল না তার স্ত্রী নমিতার। বারবার বলার পরেও নিজের এই বদাভ্যাস ছাড়তে পারেননি ভীম।গত রোববার ছিলো নমিতার ভাইয়ের ছেলের জন্মদিন। এ উপলক্ষে পরিবারের সবার সেখানে নিমন্ত্রণ ছিল। অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য ওইদিন দুপুরে উপহারও কিনে আনেন ভীম। তারপর বিকেলে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যান ভীম। কিন্তু সন্ধ্যার দিকে মদ খেয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি। এতে রেগে যান স্ত্রী নমিতা। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে নমিতার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন ভীম। এসময় বাড়িতে তারা দুজন ছাড়া কেউ ছিল না।পরে স্থানীয় লোকজনের সাহায্যে দগ্ধ নমিতাকে উদ্ধার করে লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যান ভীম। সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সোমবার সকালে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় নমিতার।এদিকে নমিতার মৃত্যুর খবর শোনার পর সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টার দিকে শিয়ালদহ রেলস্টেশনে যাত্রীবাহী এক ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন ভীম। এ ঘটনায় গোটা এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সূত্র: আনন্দবাজার

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *