আফগানদের বিপক্ষে টাইগারদের জয়ে নের্তৃত্বেও সাকিব

আফগানদের বিপক্ষে টাইগারদের জয়ে নের্তৃত্বেও সাকিব

টানা চারটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হারের পর অবশেষে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ের দেখা পেল বাংলাদেশ। এই জয়ে নেতৃত্ব দিলেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

আফগানিস্তানের দেওয়া ১৩৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে দুই ওপেনার লিটন দাস (৪) ও নাজমুল হোসেন শান্তকে (৫) হারিয়ে বিপদে পড়েছিল বাংলাদেশ।সেই ধাক্কা সামাল দেন সাকিব আল হাসান। দুই দফায় তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম আর মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

সাকিব-মুশফিকের ৫৮ রানের জুটিই বাংলাদেশকে লড়াইয়ে ফেরায়। তবে দলীয় ৭০ রানে মুশফিক (২৬) বিদায় নিলে ফের চাপে পড়ে বাংলাদেশ। তাকে অনুসরণ করে মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির ও আফিফ আউট হয়ে যান দ্রুতই। এরপর মোসাদ্দেক ১১ বলে ১ ছক্কায় ১৭ রানে সাকিবকে দারুণ সঙ্গ দেন।

শেষ ৩ ওভারে প্রয়োজন ছিল ২৭ রান। দুই ওভার বাকি ছিল রশিদ খানের। আগের দুই ওভারে ৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন এই লেগ স্পিনার। তার করা ১৮তম ওভার থেকে ১৮ রান নিয়ে ম্যাচ বাংলাদেশের দিকে ঘুরিয়ে দেন সাকিব আল হাসান ও মোসাদ্দেক হোসেন।

সাকিবের ব্যাটিং নৈপুণ্যে ৬ বল হাতে রেখেই ৪ উইকেটে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। ৪৫ বলে ৭০* রানে অপরাজিত থাকেন সাকিব।

এর আগে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৩৮ রান করে আফগানিস্তান। উদ্বোধনী জুটিতে ৭৫ রান তুললেও বাংলাদেশের বোলারদের দাপটে ১০০ রানের আগেই ৫ উইকেট হারায় আফগানিস্তান।

বাংলাদেশকে প্রথম উইকেট এনে দেয় আকিফ হোসেন। পরে এই স্পিনার একই ওভারে দ্বিতীয় উইকেট তুলে টাইগারদের ম্যাচে ফেরান। হজরতউল্লাহ জাজাইকে ৪৭ রানে ফেরানোর পর আসগর আফগানকে (০) তুলে নেন তিনি। জাজাই ৩৫ বলে ৬টি চার ও দুটি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান। ওভারটিতে দুই উইকেট নিয়ে কোনো রান দেননি আফিফ। এরপর আর কেউ তেমন হাল ধরতে পারেনি আফগানদের। শেষদিকে শফিকউল্লাহ ২৩ ও রশিদ খান ১১ রানে অপরাজিত থাকেন।

আফিফ দুটি ও মোস্তাফিজ, সাকিব, শফিউল, সাইফউদ্দিন একটি করে উইকেট পান।

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ফাইনালের আগে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে টাইগাররা। দু’দলের মধ্যে ফাইনালের আগেই বাংলাদেশ ফিরে পেল তার আত্মবিশ্বাস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

আফগানিস্তান: ২০ ওভারে ১৩৮/৭ (রহমানউল্লাহ ২৯, জাজাই ৪৭, আসগর ০, নাজিবউল্লাহ ১৪, নবি ৪, নাইব ১, শফিকউল্লাহ ২৩*, জানাত ৩, রশিদ ১১*; সাইফ ৪-০-২৩-১, শফিউল ৪-০-২৪-১, সাকিব ৪-০-২৪-১, মাহমুদউল্লাহ ১-০-১৬-০, মুস্তাফিজ ৩-০-৩১-১, মোসাদ্দেক ১-০-১০-০, আফিফ ৩-১-৯-২)

বাংলাদেশ: ১৯ ওভারে ১৩৯/৬ (লিটন ৪, শান্ত ৫, সাকিব ৭০*, মুশফিক ২৬. মাহমুদউল্লাহ ৬, সাব্বির ১, আফিফ ২, মোসাদ্দেক ১৯*; মুজিব ৪-০-১৯-১, নাভিন ৪-০-২০-২, জানাত ৩-০-৩১-১, নাইব ২-০-১৬-০, নবি ৩-০-২৪-০, রশিদ ৩-০-২৭-২)

ফল: বাংলাদেশ ৪ উইকেটে জয়ী

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *