উত্তরায় মাছের আড়তে র‌্যাবের অভিযান- ২০ মণ চিংড়ি ধ্বংস

উত্তরায় মাছের আড়তে র‌্যাবের অভিযান- ২০ মণ চিংড়ি ধ্বংস

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ রাজধানীর উত্তরার আবদুল্লাহপুরে মাছের আড়তে র র‌্যাব-৪ ও মৎস্য অধিদপ্তরের এক যৌথ ভেজালবিরোধী অভিযানে, বিষাক্ত রাসায়নিক দ্রব্য ( জেলি) মেশানো ২০ মন বাগদা চিংড়ি ধ্বংস ও দুটি আড়তের ম্যানেজারের কাছ থেকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে । মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-৪ এবং মৎস্য অধিদপ্তর যৌথ ভাবে এ অভিযান পরিচালনা করেন । নানা কৌশলে বাগদা চিংড়ির ওজন বাড়ানো হতো। আর এসব বাগদা ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করা হতো। এ কাজ চলছিল রাজধানীর উত্তরার আব্দুল্লাহপুর মৎস্য বাজারে। সেখানকার কয়েকটি আড়তে বাগদা চিংড়ি আনা হতো সাতক্ষীরা জেলা থেকে। সাতক্ষীরাতেই বাগদাগুলোর ওজন বাড়িয়ে ফেলা হতো। এ জন্য বাগদার মাথায় ভরে দেওয়া হতো ক্ষতিকর জেলি। এমন জেলি মেশানো প্রায় ২০মণ বাগদা চিংড়ি উদ্ধার করা হয় আব্দুল্লাহপুর মাছের বাজারের বাগেরহাট মৎস্য আড়ত ও মিম মৎস্য আড়ত থেকে। পরে এসব চিংড়ি পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। র্যা বের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিজাম উদ্দিন আহমেদ এই প্রতিবেদককে জানান, সাতক্ষীরা থেকে বিপুল পরিমাণ বাগদা চিংড়ি ঢাকার বাজারে আসে—তাঁরা গোপন সূত্রে এমন তথ্য পান, সাতক্ষীরাতেই তরল জেলি সিরিঞ্জের মাধ্যমে বাগদা চিংড়ির মাথার ফাঁকা অংশে ঢুকিয়ে দেওয়া হতো। বরফের মধ্যে রাখলে এই জেলি শক্ত হয়ে বাগদা চিংড়ির ওজন বেড়ে যেত। তিনি আরও বলেন, এসব বাগদার কেজিপ্রতি পাইকারি মূল্য ৫০০ টাকা, খুচরা মূল্য প্রায় ৭০০ টাকা। যে পরিমাণ বাগদা উদ্ধার করা হয়েছে, এর পাইকারি বাজার মূল্য পাঁচ লাখ টাকার বেশি। তবে অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে দুই আড়তের মালিক পালিয়ে গেছেন। এ দুটি আড়তের ম্যানেজারের কাছ থেকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে । জব্দ করা বাগদা চিংড়ি আব্দুল্লাহপুরের পার্শ্ববর্তী সিটি কর্পোরেশনের ডাম্পিং স্টেশনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। কারণ, এগুলো মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *