উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথমধাপে ৮৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ ১০ মার্চ

মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ প্রথম ধাপে দেশের ৮৭ উপজেলায় ১০ মার্চ ভোট গ্রহণ হবে বলে জানিয়েছেন  নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।রোববার বিকেলে নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ দুই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। তফসিল অনুযায়ী সংরক্ষিত মহিলা আসনে ভোট ৪ মার্চ আর উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপের ভোট ১০ মার্চ।ইসি সচিব বলেন, পাঁচ ধাপে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম ধাপে ৮৭ উপজেলায় ১০ মার্চ ভোট গ্রহণ হবে। প্রথম ধাপের মনোনয়ন জমার শেষ দিন ১১ ফেব্রুয়ারি, বাছাই ১২ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে ১৯ ফেব্রুয়ারি।

পাঁচ ধাপে পঞ্চম উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১০ মার্চ উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। দেশের চারটি বিভাগের ১২ জেলার ৮৭ উপজেলায় এই ভোটগ্রহণ নেওয়া হবে। এছাড়া দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৪ মার্চ, চতুর্থ ধাপে ৩১ মার্চ এবং পঞ্চম ধাপে ১৮ জুন ভোটের সম্ভাব্য দিন নির্ধারণ করেছে নির্বাচন কমিশন। গতকাল রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ৪৫তম সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সভা শেষে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

ইসি সচিব জানান, পাঁচ ধাপে উপজেলা পরিষদের ভোট অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম ধাপে চার বিভাগের ১২ জেলার ৮৭ উপজেলায় ১০ মার্চ ভোটগ্রহণ হবে। উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হতে হলে স্থানীয় সরকারের লাভজনক সব পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে।

ইসি সচিবের তথ্যানুযায়ী, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপের মনোনয়নপত্র জমা ১১ ফেব্রুয়ারি, যাচাই-বাছাই ১২ ফেব্রুয়ারি এবং মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের দিন ১৯ ফেব্রুয়ারি।

প্রথম ধাপের চার বিভাগের মধ্যে রংপুর বিভাগের পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, লালমনিরহাট ও রংপুর জেলার সব উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ময়মনসিংহ বিভাগের মধ্যে নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলা ছাড়া সব উপজেলা ও জামালপুরের সব উপজেলায়, সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর বাদ দিয়ে সব উপজেলায়, হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ বাদ দিয়ে সব উপজেলায় নির্বাচন হবে। রাজশাহী বিভাগের সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলা বাদ দিয়ে সব উপজেলায়, জয়পুরহাটের সব উপজেলায়, নাটোরের নলডাঙ্গা বাদ দিয়ে সব উপজেলা এবং রাজশাহী জেলার সব উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সংরক্ষিত মহিলা আসনের ভোট হবে ৪ মার্চ। ভোট না হলে মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিন অর্থাৎ ১৬ ফেব্রুয়ারিই নির্ধারণ হয়ে যাবে সংরক্ষিত মহিলা আসনে কারা সাংসদ হচ্ছেন।সর্বশেষ ২০১৪ সালের মার্চ-মে মাসে ছয় ধাপে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আইনে মেয়াদ শেষের পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে ভোটের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *