একই সাথে ব্যর্থ হলেন তারা

একই সাথে ব্যর্থ হলেন তারা

ডেস্কঃ চলতি অক্টোবর মাসের ১০ তারিখ থেকে মাঠে গড়াচ্ছে জাতীয় ক্রিকেট লীগ (এনসিএল) । এবারের জাতীয় ক্রিকেট লীগ দেশের ক্রিকেটারদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ । কারণ আগামী মাসে ভারত সফরের আগে এই লীগের পারফর্মেন্স বিবেচিত হবে জাতীয় দল গঠনের জন্য। আসন্ন এনসিএলের আগে ক্রিকেটারদের দিতে হচ্ছে ফিটনেস পরীক্ষা । যাকে বলা হচ্ছে ‘ বিপ টেস্ট’ । জাতীয় লীগে খেলতে এই টেস্টে পাস করা বাধ্যতামূলক করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। পাস মার্ক নির্ধারণ করা হয়েছে ১১। কিন্তু এই পরীক্ষায় উতরাতে ব্যর্থ হয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল , নাসির হোসেন আর আবদুর রাজ্জাক রাজের মত জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার। মঙ্গলবার বিপ টেস্টে ৯.৬ পয়েন্ট পেয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। আর নাসির পেয়েছেন ৯.৭ পয়েন্ট। এনসিএল খেলতে হলে ফের তাদের পরীক্ষায় বসতে হবে। এছাড়াও ইলিয়াস সানিও ফেইল করেছেন এই পরীক্ষায়। বিপ টেস্টে মুলত ব্যাট বল দিয়ে খেলোয়াড়দের দম পরীক্ষা করা হয় । ফিটনেস টেস্টে ২০ মিটার শাটল রানের মাধ্যমে নির্ধারিত হয় খেলোয়াড়দের পরীক্ষার ফলাফল । যা এই মুহূর্তে পাস করতে পারেন নি আশরাফুলসহ অন্যরা। ১১.১ নিয়ে বিপ টেস্টে কৃতকার্য হয়েছেন পেসার আবু হায়দার রনি। জাহিদুজ্জামান ১২.৯ ও সৈকত আলি ১১.৪ পয়েন্ট নিয়ে উত্তীর্ণ হওয়ার তালিকায় রয়েছেন। তবে অল্পের জন্য পাশ করতে পারেননি স্পিনার আরাফাত সানি। তার স্কোর ১০.৯ পয়েন্ট। মার্শাল আইয়ুব ১১.৪, শামসুর রহমান ১১.৩, আল আমিন জুনিয়র ১১.৩, মেহেদি মারুফ ১১.৮, শুভাগত ১১, অপু ১১.১ ও জুবায়ের লিখন ১১.২ পয়েন্ট পেয়ে কৃতকার্য হয়েছেন। এই টেস্টে পেসার মানিক ১২.৮ ও উইকেটরক্ষক শাকিল ১২.৬ পয়েন্ট নিয়ে উতরে গেছেন। তবে ইলিয়াস সানি, নাদিফ চৌধুরী ব্যর্থ হয়েছেন। সানি ১০ ও নাদিফ ১০.৪ পয়েন্ট করতে পেরেছেন। বিপ টেস্টে পাস করতে না পারলেও অবশ্য নিরাশ হওয়ার কিছু নেই। আরও কয়েকবার পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ থাকছে। সবশেষ পরীক্ষায় উৎরাতে পারলেও এনসিএলে খেলতে পারবেন তারা।
উৎসঃ ক্রীড়ালোক

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *