কালীগঞ্জে বাক প্রতিবন্ধি কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগে চার ধর্ষক গ্রেফতার, পুলিশ সুপারের ঘটনাস্থল পরিদর্শন

কালীগঞ্জে বাক প্রতিবন্ধি কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগে চার ধর্ষক গ্রেফতার, পুলিশ সুপারের ঘটনাস্থল পরিদর্শন

ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে এক বাক প্রতিবন্ধি কিশোরীকে গণধর্ষণে অভিযোগ শনিবার চার ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলো বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে সেলিম পাটোয়ারী, বানুড়িয়া গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে সাঈদ হোসন, নুর আলীর ছেলে রাকিব হোসেন এবং লাল চাঁদের ছেলে আশিক। খবর পেয়ে শনিবার বিকালে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। আর ঘটনাটি ঘটে গত ৬ ফেব্রুয়ারী রাতে ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের বানুড়িয়া গ্রামে। কিন্তু সংখ্যালঘু পরিবার হওয়ায় ৩ দিন পর বিষয়টি ফাঁস হয়ে পড়ে। প্রতিবেশি শফি উদ্দীনের স্ত্রী সবুরা বেগম ও ভোলানাথের স্ত্রী কল্পনা রাণী জানান, ঘটনার রাতে আমরা ধর্ষিতাদের বাড়িতেই টেলিভিশন দেখছিলাম। এসময় সে ঘরের বারান্দায় বসে খাবার খাচ্ছিল। কিছুক্ষণ পরে তাকে বাড়িতে না পেয়ে খোজাখুজি শুরু করা হয়। ঘন্টাখানেক পর পাশের একটি বাগানে পোষাকবিহীন অবস্থায় উদ্ধার করে বাড়িতে আনা হয়। ধর্ষিতার বাবা সদানন্দ ওরফে স্বপন জানান, ঘটনার পর থেকে ধর্ষনকারীরা আমাকে এবং আমার পরিবারকে হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিল ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য। শুক্রবার রাতে ধর্ষক সাঈদ আমাকে ফোনে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এরপর আমি স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে কালীগঞ্জ পুলিশকে বিষয়টি জানায়। কালীগঞ্জ থানার ওসি ইউনুচ আলী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঘটনার সাথে জড়িত ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, এসময় ধর্ষনের সিকার কিশোরীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ছানা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *