গোবিন্দগঞ্জে ডাক্তার,পুলিশ, নার্সসহ নতুন করে ৪৩ জন করোনা শনাক্ত,|শনাক্ত বেড়ে ১৮৩জন

গোবিন্দগঞ্জে ডাক্তার,পুলিশ, নার্সসহ নতুন করে ৪৩ জন করোনা শনাক্ত,|শনাক্ত বেড়ে ১৮৩জন

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ  শনিবার ৪ঠা জুলাই আরও ৪৩জন করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) রোগে আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। এ ৪৩ জন রংপুর মেডিক্যাল কলেজে স্থাপিত আর টি পিসিআর ল্যাব ছাড়াও ঢাকার বিভিন্ন ল্যাবে পরীক্ষা করে শনাক্ত হয়েছে। 
নতুন আক্রান্ত ৪৩ জন হল -রেজাউল হক-সে পৌর শহরের হীরক পাড়ার বাসিন্দা,আব্দুল অাওয়াল-সে পৌর শহরের ঘোষপাড়ার বাসিন্দা, সিরাজুল ইসলাম সে পৌর শহরের দূর্গাপুর(পান্হাপাড়া) এলাকার বাসিন্দা, কোরবান আলী-সে পৌর শহরের দূর্গাপুর মহল্লার বাসিন্দা ,শামীমা খাতুন সে পৌর শহরের  প্রধানপাড়ার বাসিন্দা,রুবিনা,হারুন ওর রশিদ (হারুন ব্রাদার্স) পৌর শহরের পান্হাপাড়ার বাসিন্দা,সুমি -সে পৌর শহরের  ঠাকুর বাড়ি মহল্লার বাসিন্দা, জাহান্গীর- সে  ঘুগা বাসিন্দা,সাজ্জাদুর রহমান সে কোচাশহর ইউনিয়নের শক্তি পুর গ্রামের বাসিন্দা,অাব্দুল  হামিদ মেম্বার সে তালুক কানুপুর ইউনিয়নের  উত্তরপাড়ার বাসিন্দা,  অানিকা সে পৌর শহরের  পান্হাপাড়ার বাসিন্দা , অাশিক-সে পৌর শহরের  ঘোষপাড়ার বাসিন্দা , জান্নাতুল ফেরদৌস – কোচাশহর ইউনিয়নের বাসিন্দা, অাব্দুল্লাহ মামুন-সে গোবিন্দগঞ্জ কোর্টে কর্মরত, মানিক সে পৌর শহরের  পান্হাপাড়ার বাসিন্দা, অামিরুল সে পৌর শহরের  ঘোষপাড়ার বাসিন্দা , তাজরুল সে নাকাই ইউনিয়নের পাটোয়া গ্রামের বাসিন্দা ,অাব্দুর রহমান পৌর শহরের  বুজরুক বোয়ালিয়া মহল্লায় বাসিন্দা। ফয়েজ উদ্দিন -পৌর শহরের গোবিন্দগঞ্জ  মহিলা কলেজ এলাকার বাসিন্দা,নাবিল-সে পৌর শহরের গোহাটিপাড়ার নাসিরের পুত্র,এনামুল কবির -সে খামারপাড়ার বাসিন্দা। অাবু তালেব ও জহুরা এদুজন দরবস্ত ইউনিয়নের দূর্গাপুর মহল্লার বাসিন্দা,রুনিল সরেন-সে কাটাবাড়ী ইউনিয়নের বেগুনবাড়ি এলাকার বাসিন্দা,  দিল জাহান রূবা-সে পৌর শহরের  শিল্পপাড়ার বাসিন্দা।
এছাড়া গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেের ডাক্তার-১,নার্স-২, অফিস সহকারী ১জন ও তার মা,ভাই,ছেলেসহ অফিস সহায়ক -১, স্বাস্থ্য সহকারী -১জন করোনা শনাক্ত হয়েছে।এর মধ্যে গোবিন্দগঞ্জ  থানার ২ পুলিশ সদস্য ও গোবিন্দগঞ্জ  হাইওয়ে থানার দুই পুলিশ সদস্য রয়েছে। 
এ ৪৩ জন শনাক্তের তথ্যের সত্যতা শনিবার দুপুর ১টায় নিশ্চিত করেছেন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক কর্মকর্তা মজিদুল ইসলাম। 
এনিয়ে  উপজেলায় মোট  শনাক্ত সংখ্যা দাঁড়াল -(১৪৪+৩৯)=১৮৩ জন।এর মধ্যে ৪জন মারা গেছে এবং ৭৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরে গেছে।বাকীরা চিকিৎসাধীন রয়েছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *