গোলাপগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা অসহায় আল-আমিনের পিতা

গোলাপগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা অসহায় আল-আমিনের পিতা

শাহান আহমদ , গোলাপগঞ্জ (সিলেট)প্রতিনিধি :
গোলাপগঞ্জে পুত্রকে ষড়যন্ত্র থেকে রক্ষায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন অসহায় আল-আমিনের পিতা তফজ্জুল আলী। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি জেলা প্রশাসক মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর এ আবেদন করেন তফজ্জুল আলী।
আবেদন সূত্রে জানা যায়, আল-আমিন(২৬) বাংলাদেশ জাতীয় বিশ্ব বিদালয়ের সিলেট আঞ্চলিক কেন্দ্রের একজন কর্মচারী। সে দীর্ঘ প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরে সিলেট মহানগরীর পাঠানটুলাস্থ অত্র কার্যালয়ে কর্র্মরত আছে। গত ৫ ফেব্রুয়ারী অত্র প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ইব্রাহিম খলিল, তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর থেকে আল আমিনের পিতা তফজ্জুল আহমদকে জানান ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে ৪ ফেব্রুয়ারী গভীর রাতে তার স্ত্রী ও আল-আমিনকে একদল লোক নিয়ে গেছে। বিষয়টি অবহিত হয়ে আমরা ইব্রাহিম খলিলের কাছে সঠিক তথ্য জানতে চাইলে তিনি আমাদেরকে তথ্য না দিয়ে বরং আতংক গ্রস্থ করার জন্য বলেন বিষয়টি পুলিশ, র‌্যাব বা সাংবাদিকদের জানালে বড় ধরণের ক্ষতি হবে।
আবেদনে উল্লেখ করা হয়, গত ১৭ ফেব্রুয়ারী জাতীয় একাধিক দৈনিকে তার পুত্র আল-আমিনের ছবিসহ নিউজ প্রকাশিত হয়। তাতে উল্লেখ করা হয়েছে আল-আমিন জঙ্গিবাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। তাকে নাকি ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানার মাতুয়াইল থেকে আটক করা হয়েছে। অথচ আল-আমিনকে যে সিলেটের পাঠানটুলার বাসস্থান থেকে আটক করা হয়েছে তার যথেষ্ট প্রমাণ তাদের কাছে রয়েছে। ইব্রাহিম খলিল যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানিয়েছিল তাতে সে বলেছিল তার স্ত্রী ও আমার পুত্র আল-আমিনকে তার বাসা থেকে ডিবি পুলিশ আটক করেছে যার ভয়েস রেকর্ড তাদের কাছে আছে।
এব্যাপারে আলামিনের পিতা গত ৭ ফেব্রুয়ারী সিলেট কতোয়ালী মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (ডায়েরী নং- ৫৪৩) এবং পরবর্তীতে গত ১১ ফেব্রুয়ারী র‌্যাব-৯ সিলেট এর অধিনায়ক বরাবরে একটি আবেদন করলে তারাও এব্যাপারে অনেক খোঁজখবর নেন।
আবেদনে আরো উল্লেখ করা হয়, গরীব অসহায় পরিবারের তাদের সন্তানকে সিলেট থেকে আটক করে আটক স্থল ঢাকায় দেখিয়ে জঙ্গির মতো ভয়ংকর অপরাধি হিসেবে বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশ করার বিষয়টি আলামিনের পরিবার পরিজন ও এলাকাবাসীকে খুবই দুশ্চিন্তার মধ্যে ফেলেছে।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা ইব্রাহিম খলিলের ষড়যন্ত্রে তার সহজ সরল পুত্র বিপদগ্রস্থ হয়েছে।
ইব্রাহিম খলিলের আচরণ ও কথাবার্তার মধ্যেও যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। তার নিয়ন্ত্রণে থাকাবস্থায় আলামিনকে আটক করা হয়। তিনি এ বিষয়ে সুষ্ট তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা ও এক অসহায় পিতাকে সহায়তা করার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *