ঝিনাইদহে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমান

ঝিনাইদহে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমান

ঝিনাইদহঃ
কোভিড-১৯ বিস্তারের ফলে দেশের অফিস, আদালত, স্কুল ও কলেজ বন্ধ থাকায় কার্যক্রম চালিয়ে নিতে দেশব্যাপী অনলাইন মিটিং এবং অনলাইন ক্লাস শুরু হয়। অনলাইনে কার্যক্রম শুরু হওয়ায় দেশে হঠাৎ করে স্মার্টফোনের চাহিদা বেড়ে যায়। এই সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী স্মার্টফোনের সংকটকে কারণ হিসেবে দেখিয়ে নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে অধিক মূল্যে স্মার্টফোন বিক্রয় শুরু করেন। বিষয়টি আমলে নিয়ে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঝিনাইদহ জেলা কার্যালয় হতে শহরের কেসি কলেজের সামনে জেলা পরিষদ মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় মোবাইল টিমের সদস্যরা ক্রেতা সেজে নাইচ টেলিকম ও বিসমিল্লাহ টেলিকমে গিয়ে দেখতে পান ১২ হাজার ৯৯০ টাকা মূল্যের মোবাইল ফোন ১৪ হাজার টাকা হতে শুরু করে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রয় করা হচ্ছে। বিষয়টি হাতেনাতে ধৃত হওয়ায় জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সুচন্দন মন্ডল ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ মোতাবেক উভয় প্রতিষ্ঠানকে ১৫ হাজার টাকা করে সর্বমোট ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে। পরবর্তীতে শহরের নতুন হাটখোলা এলাকায় পিঁয়াজসহ অন্যান্য পণ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন ও ক্রয় ভাউচার সংরক্ষণ বিষয়ক মাইকিং করা হয়। এসময় সার্বিক সহযোগিতা করেন পৌরসভা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর শংকর কুমার নন্দী, ফিল্ড অফিসার রফিকুল ইসলাম, এন এস আই এবং জেলা পুলিশের একটি টিম। জনস্বার্থে এ অভিযান চলমান থাকবে বলেও তিনি আরও জানান।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *