ডিসি সুলতানার পরিবারের দখলে থাকা ১১ বিঘা জমি উদ্ধার

ডিসি সুলতানার পরিবারের দখলে থাকা ১১ বিঘা জমি উদ্ধার

কুড়িগ্রাম থেকে সদ্য প্রত্যাহারকৃত জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুলতানা পারভীনের বাবা ও অন্যান্য স্বজনদের দখলে অবৈধভাবে থাকা ১১ বিঘা জমি আদালতের নির্দেশে ফিরে পেলেন আমিরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি ও তার স্বজনরা। বুধবার (১৮ মার্চ) পঞ্চগড়ের সহকারী জজ আদালতের নির্দেশে পুলিশ ও আদালতের সেরেস্তাদার ঢাক-ঢোল পিটিয়ে জমির দখল বুঝিয়ে দেন আমিরুলদের।জানা যায়, সদ্য সাবেক কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের ক্ষমতা দেখিয়ে তার স্বজনরা দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে ১১ বিঘা জমি দখল করে রেখেছিলেন। অবশেষে আদালতের আদেশে জমিটি ফিরে পেলেন ভুক্তভোগীরা।আদালত সূত্রে জানা যায়, পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের জিয়াবাড়ি গ্রামের আমিরুল ইসলাম ও তার স্বজনরা পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ১১ বিঘা জমি ভোগ দখল করে আসছিলেন। কিন্তু সুলতানা পারভীনের বাবা মোহাম্মদ আলী ও স্বজনরা ডিসির ক্ষমতার দেখিয়ে ওই জমি জবর দখল করে ভোগ করে আসছিলেন। এ ঘটনায় আমিরুল এবং তার স্বজনরা আদালতে মামলা দায়ের করলে নিম্ন আদালতে তাদের রায় পান। পরে প্রতিপক্ষ হাইকোর্টে আপিল করলে আদালত তাদের আপিল খারিজ করে দেন। অবশেষে দীর্ঘ ১৪ পর আদালত ডিসির স্বজনদের অবৈধ দখলে থাকা ১১ বিঘা জমি আমিরুল ইসলাম ও তার স্বজনদের কাছে দখল বুঝিয়ে দেন।এ বিষয়ে আমিরুল ইসলাম বলেন, ১৩ বছর ধরে মামলা চালানার পর আদালত আমাদের পক্ষে রায় দেন এবং আদালতের নির্দেশে আমরা ১১ বিঘা জমির দখল পেলাম।পঞ্চগড় সহকারী জজ আদালতের নাজির মো. তমিজ উদ্দিন জানান, আদালতের নির্দেশে আমরা ঢাক-ঢোল পিটিয়ে জমির মালিকদের জমি বুঝিয়ে দিয়েছি।উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ মধ্যরাতে দরজা ভেঙ্গে বাংলা ট্রিবিউনের কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলামকে ডিসি কার্যালয়ে নিয়ে নির্যাতন করা হয়। এরপর মাদক দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয় তাকে। ১৫ মার্চ আরিফ মুক্তি পান। এ ঘটনায় কুড়িগ্রামের ডিসি সুলতানা পারভীন, আরডিসি নাজিম উদ্দিন ও দুই সহকারী কমিশনারকে প্রত্যাহার করা হয় গত ১৬ মার্চ। এর আগে ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ৩ মার্চ সুলতানা পারভীন কুড়িগ্রামের ডিসি হিসেবে যোগ দেন।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *