থমথমে অযোধ্যা; সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিক্রিয়ায় মামলা, ধরপাকড়

থমথমে অযোধ্যা; সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিক্রিয়ায় মামলা, ধরপাকড়

ডেস্কঃ বাবরি মসজিদ মামলা নিয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল হয়েছে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। একে রাজনৈতিক রায় আখ্যা দিয়েছেন ভারতের সাবেক প্রধান বিচারপতি। রায়ের প্রতিক্রিয়ায় তোলপাড় খোদ ভারতেই। উত্তর প্রদেশে মামলা হয়েছে ৩৭ জনের বিরুদ্ধে। মসজিদ নির্মাণের জন্য জমি গ্রহণ করা হবে কী না এ বিষয়ে সুন্নী ওয়াকফ বোর্ডের সিদ্ধান্ত ২৬ নভেম্বর।
অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ মামলার রায় ঘিরে এমন উচ্ছ্বাস চলছে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি শিবিরে। অযোধ্যার রায়কে মোদি সরকারের বিজয় হিসেবে দেখছে নিউইয়র্ক টাইমস, ওয়াশিংটন পোস্টসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো। রায়কে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়েছেন ক্ষমতাসীনরা। দেশবাসীকে সম্প্রীতি রক্ষার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, সারা বিশ্ব জানে, ভারত সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশ। অযোধ্যা রায়ের মাধ্যমে আবার প্রমাণ হল আমাদের গণতন্ত্র কতটা শক্তিশালী। এ রায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার বার্তা দেয়। এই রায়ের পর নতুন ভারত নির্মাণের কাজ শুরু হল। বিজেপি সরকারের সাফাই গেয়ে টুইট করেছেন অনুপেম খের, ফারহান আখতারসহ অনেক তারকাও। অবশ্য একে রাজনৈতিক রায় আখ্যা দিয়েছেন ভারতের একজন সাবেক প্রধান বিচারপতি। তার প্রতিক্রিয়া ঘিরে তোলপাড় চলছে খোদ ভারতেই। এ রায়ের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া। বিজেপি সরকারের সমালোচনা করায় ২৪ ঘন্টায় সাড়ে ৩ হাজার পোষ্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়। রায়ের পর কড়া নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে পুরো অযোধ্যা। কোনো সহিংসতার খবর না মিললেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানানোও এফআইআর দায়ের করা হয়েছে ৩৭ জনের বিরুদ্ধে।উত্তরপ্রদেশ, কর্ণাটক, মধ্যপ্রদেশ, দিল্লি ও রাজস্থানের স্কুল-কলেজ বন্ধ। কেবল উত্তর প্রদেশেই মোতায়েন আছেন ১২ হাজার নিরাপত্তাকর্মী। রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে না সুন্নী ওয়াকফ বোর্ড। ২৬ নভেম্বর বোর্ডের বৈঠকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে। ভারতের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান জাফর আহমেদ ফারুকী বলেন, ৫ একর জমি গ্রহণের পক্ষে-বিপক্ষে মত পাচ্ছি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য আরো দুই সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে। মুসলিমদের সংযত আচরণের আহ্বান জানিয়েছেন দিল্লি শাহী মসজিদের ইমাম সাইদ আহমেদ বুখারি। তিনি বলেন, আদালতের রায় মেনে নিয়েছি আমরা। আশা করবো ভারতের মুসলিমরাও দেশে শান্তি বজায় রাখবেন। সর্বোচ্চ আদালত কখনো ভুল রায় দিতে পারে না। ভারতের সংবিধানের প্রতি পূর্ণ আস্থাশীল আমরা। তবে মসজিদের জন্য ৫ একরের দাখিন্য দরকার নেই আমাদের।
বাবরি মসজিদ ইস্যুতে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে বাংলাদেশহ বিভিন্ন দেশে চলে প্রতিবাদ।েডে বাবরি মসজিদ মামলা নিয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল হয়েছে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। একে রাজনৈতিক রায় আখ্যা দিয়েছেন ভারতের সাবেক প্রধান বিচারপতি। রায়ের প্রতিক্রিয়ায় তোলপাড় খোদ ভারতেই। উত্তর প্রদেশে মামলা হয়েছে ৩৭ জনের বিরুদ্ধে। মসজিদ নির্মাণের জন্য জমি গ্রহণ করা হবে কী না এ বিষয়ে সুন্নী ওয়াকফ বোর্ডের সিদ্ধান্ত ২৬ নভেম্বর।
অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ মামলার রায় ঘিরে এমন উচ্ছ্বাস চলছে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি শিবিরে। অযোধ্যার রায়কে মোদি সরকারের বিজয় হিসেবে দেখছে নিউইয়র্ক টাইমস, ওয়াশিংটন পোস্টসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো। রায়কে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়েছেন ক্ষমতাসীনরা। দেশবাসীকে সম্প্রীতি রক্ষার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, সারা বিশ্ব জানে, ভারত সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশ। অযোধ্যা রায়ের মাধ্যমে আবার প্রমাণ হল আমাদের গণতন্ত্র কতটা শক্তিশালী। এ রায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার বার্তা দেয়। এই রায়ের পর নতুন ভারত নির্মাণের কাজ শুরু হল। বিজেপি সরকারের সাফাই গেয়ে টুইট করেছেন অনুপেম খের, ফারহান আখতারসহ অনেক তারকাও। অবশ্য একে রাজনৈতিক রায় আখ্যা দিয়েছেন ভারতের একজন সাবেক প্রধান বিচারপতি। তার প্রতিক্রিয়া ঘিরে তোলপাড় চলছে খোদ ভারতেই। এ রায়ের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া। বিজেপি সরকারের সমালোচনা করায় ২৪ ঘন্টায় সাড়ে ৩ হাজার পোষ্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়। রায়ের পর কড়া নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে পুরো অযোধ্যা। কোনো সহিংসতার খবর না মিললেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানানোও এফআইআর দায়ের করা হয়েছে ৩৭ জনের বিরুদ্ধে।উত্তরপ্রদেশ, কর্ণাটক, মধ্যপ্রদেশ, দিল্লি ও রাজস্থানের স্কুল-কলেজ বন্ধ। কেবল উত্তর প্রদেশেই মোতায়েন আছেন ১২ হাজার নিরাপত্তাকর্মী। রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে না সুন্নী ওয়াকফ বোর্ড। ২৬ নভেম্বর বোর্ডের বৈঠকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে। ভারতের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান জাফর আহমেদ ফারুকী বলেন, ৫ একর জমি গ্রহণের পক্ষে-বিপক্ষে মত পাচ্ছি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য আরো দুই সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে। মুসলিমদের সংযত আচরণের আহ্বান জানিয়েছেন দিল্লি শাহী মসজিদের ইমাম সাইদ আহমেদ বুখারি। তিনি বলেন, আদালতের রায় মেনে নিয়েছি আমরা। আশা করবো ভারতের মুসলিমরাও দেশে শান্তি বজায় রাখবেন। সর্বোচ্চ আদালত কখনো ভুল রায় দিতে পারে না। ভারতের সংবিধানের প্রতি পূর্ণ আস্থাশীল আমরা। তবে মসজিদের জন্য ৫ একরের দাখিন্য দরকার নেই আমাদের।
বাবরি মসজিদ ইস্যুতে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে বাংলাদেশহ বিভিন্ন দেশে চলে প্রতিবাদ।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *