দালালদের খপ্পরে পড়ে অবৈধ পথে ভারত থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশী ৭ তরুণীর বাড়ি ঝিনাইদহ

দালালদের খপ্পরে পড়ে অবৈধ পথে ভারত থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশী ৭ তরুণীর বাড়ি ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহঃদালালদের খপ্পরে পড়ে অবৈধ পথে ভারতে যাওয়া সাত বাংলাদেশি তরুণীকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বুধবার সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল সীমান্ত চেকপোস্ট দিয়ে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে তাদের তুলে দেয়া হয়। এ সময় ভারতের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ), বাংলাদেশের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ(বিজিবি) ও পুলিশ প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশে ফেরত আসা ৭ তরুণীর বাড়ি খুলনা, পিরোজপুর ও ঝিনাইদহ জেলায়। তারা হলেন- রওজা খাতুন (২১), ময়না খাতুন (১৯), মরিয়ম (১৮), শান্তি খাতুন (১৬), রিনা খাতুন (১৯), বিলকিস (২২) ও সিমা আক্তার (২১)। কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে পোর্ট থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে বলে জানান বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের পরিদর্শক (তদন্ত) মাসুম বিল্লাহ। ফেরত আসা সাত তরুণীকে তাদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আলমগীর হোসেন। তিন বছর আগে এসব বাংলাদেশি তরুণী দালালের খপ্পরে পড়ে অবৈধ পথে ভারতে যান। এ সময় অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতীয় পুলিশ তাদের আটক করে আদালতে পাঠায়। ভারতের একটি এনজিও সংস্থা আদালত থেকে তাদের ছাড়িয়ে নিয়ে একটি শেল্টার হোমে রাখে। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে বিশেষ ট্রাভেল পারমিট আইনে তাদের দেশে ফেরার ব্যবস্থা করা হয়। ফেরত আসা তরুণীদের যশোরে তাদের নিজস্ব শেল্টার হোমে রাখা হবে। পরে অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে বলে জানান জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের যশোর শাখার তথ্য ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা এ বি এম মুহিত হোসেন।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *