পলাশবাড়ীতে গৃহবধূর চুল কর্তন: শাশুড়ি ও ননদ আটক

হরিপুরে দুই মাদককারবারী আটক

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা ঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূর ওপর নির্যাতন ও মাথার চুল কেটে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ওই গৃহবধূর নাম ইতি বেগম। তাকে প্রায়ই ঘরে আটকে রেখে শ্বশুর বাড়ির পরিবারের সদস্যরা নির্যাতন করতো বলে অভিযোগ করেছে ইতি বেগম।
এ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ইতি বেগমকে শ্বশুর বাড়ি থেকে উদ্ধার করেছে। এ সময় ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শাশুড়ি মঞ্জুয়ারা ও ননদ শ্যামলী বেগমকে আটক করেছে পুলিশ। তবে অভিযুক্ত স্বামী মোস্তফা এবং শ্বশুর ফেলু মিয়া পলাতক রয়েছে।
পুলিশ জানায়, গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার ইতি বেগমের সাথে পলাশবাড়ী উপজেলার মোস্তফার প্রায় তিন বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে প্রায়ই মোস্তফা ও তার বাবা-মা ইতির ওপর শারীরিক নির্যাতন করে আসছিল। এ বিষয়ে একাধিকবার শালিস বৈঠক হলেও কোনও সুরাহা হয়নি।
বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে যৌতুক দাবি করে গৃহবধূ ইতিকে মারধর করে মাথার চুল কেটে ফেলে এবং ঘরে বন্দী করে রাখে অভিযুক্তরা। ইতির মা আকলিমা বেগম খবর পেয়ে শনিবার মেয়েকে উদ্ধারের জন্য মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে গেলে তাকে হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়া হয়। খবর পেয়ে রাতে পুলিশ ইতিকে উদ্ধার করে এবং তার শাশুড়ি ও ননদকে আটক করে।
পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিপজুর আলম মুন্সি বলেন, ওই গৃহবধূকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার সঙ্গে জড়িত গৃহবধূর শাশুড়ি ও ননদকে আটক করা হয়েছে। স্বামী ও শ্বশুরকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।
এ ঘটনায় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা হয়েছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *