পলাশবাড়ীতে সাড়ে ৭ বছর বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থেকে বহাল তবুয়াতে

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা ঃ পলাশবাড়ী উপজেলার ঝালিঙ্গী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রায় সাড়ে ৭ বছর অনুপস্থিত থেকেও বেতন ভাতা উত্তোলনের জোর তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন সহকারি শিক্ষক মাহাবুবুল ইসলাম।
নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ঝালিঙ্গী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক মাহাবুবুল ইসলাম এসএসসি (তৃতীয় বিভাগ) ২০০৪ সালের ১লা জানুয়ারী ১ বছরের কোর্সে সিইনএড প্রশিক্ষণে যোগদান করেন। ১৫/০১/২০১২ ও ১০/০৩/২০১২ তারিখে ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক উক্ত সহকারী শিক্ষককে ২ বার কৈফিয়ত তলব করা হয়। উক্ত সহকারী শিক্ষক কোন প্রকার কৈফিয়তের জবাব না দেওয়ায় ০৫/০৪/২০১২ তারিখে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। সাময়িক বরখাস্তের পরেও সে কোন প্রকার জবাব দাখিল করেন নাই। পরবর্তীতে ২০/০৫/২০১২ তারিখে ম্যানেজিং কমিটি চূড়ান্তভাবে তাকে বরখাস্ত করেন এবং বিধি মোতাবেক উক্ত শিক্ষকের সকল কাগজপত্রাদি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ সহ সহকারী শিক্ষকের পদ শূন্য ঘোষণা করে উক্ত পদে নতুন শিক্ষকের জন্য আবেদন করা হয়। কিন্তু আবেদনের প্রেক্ষিতে কোন প্রকার সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করে রহস্যজনক কারণে উক্ত সহকারী শিক্ষকের নামে গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে। মাহাবুবুল ইসলাম (সহকারী শিক্ষক) গত ১২/০৭/২০১১ইং তারিখ হতে অদ্যবধি বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত রয়েছে এবং ২০১৩ সালে বিদ্যালয় গুলি জাতীয়করণ করার পর শিক্ষকের সর্বপ্রকার কাগজপত্রাদি উপজেলা যাচাই-বাছাই কমিটিতে অন্য সকল শিক্ষকদের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়েছে কিন্তু উক্ত সহকারী শিক্ষক মাহাবুবুল ইসলামের কোন কাগজপত্রাদি যাচাই-বাছাই কমিটিতে প্রেরণ করা হয় নাই।

গত ১১/০১/২০১৯ তারিখে উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য হয়। উক্ত পদে উক্ত শিক্ষকের আপন ভাই ডাকেরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামছুজ্জামান চৌধুরীকে উক্ত বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদে বহাল করে উক্ত বরখাস্ত সহকারী শিক্ষক মাহাবুবুল ইসলামকে পূনরায় যোগদান করার জোর পায়তারা করছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *