পীরগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল! অপরাধীরা ধরাছোয়ার বাইরে!

পীরগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল! অপরাধীরা ধরাছোয়ার বাইরে!

পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি ঃ
পীরগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি কেলেংকারীর অভিযোগে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের আলোকে ৩ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল করা হলেও জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। গতকাল মঙ্গলবার কমিটি ওই প্রতিবেদন ইউএনওকে দিয়েছে।
অভিযোগে জানা গেছে, ২০১৯ শিক্ষা বছরে পীরগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে ৭৫ আসনে (ছাত্র-ছাত্রী) ভর্তির জন্য গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর ভর্তি পরীক্ষা দেয়। ওইদিন পরীক্ষা কক্ষে দায়িত্ব পালনকারী একাধিক শিক্ষক শিক্ষার্থীদের খাতায় লিখে দেয়াসহ প্রশ্নোত্তর বলে দেয়। এ ঘটনায় একাধিক অভিভাবক ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভাপতি ইউএনও টিএমএ মমিন এর কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। ১ জানুয়ারী স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে রাজনৈতিক নেতৃবন্দ, সমাজসেবকবৃন্দ, অভিভাবকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীরা ‘সচেতন অভিভাবক’ ব্যানারে মানববন্ধন করে। পরে ইউএনও’র কাছে স্মারকলিপি দেয়। একপর্যায়ে ঘটনাটির তদন্তে ইউএনও ৫ সদস্যের কমিটি করে দেন। কমিটির সদস্যরা হলেন, সহকারী কমিশনার (ভুমি) সঞ্জয় কুমার মহন্ত, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মমিন মন্ডল, অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান, উপাধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম এবং প্রধান শিক্ষক আনোয়ারুল ইসলাম মান্নু। গতকাল ওই কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন দিয়েছে। প্রতিবেদনে ৩ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল এবং জড়িত শিক্ষক কর্মচারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। বিদ্যালয়টিতে ভর্তি বঞ্চিত শিক্ষার্থীর অভিভাবক আবু হায়াত মোসাদ্দেক, ইদ্রিস আলী ও মিঠু মিয়া বলেন, জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় আমরা হতাশ হয়েছি। অপরদিকে মাত্র ৩ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলের সুপারিশ কার্যকর হচ্ছে। তদন্ত কমিটির কাছে এমন প্রত্যাশা করিনি। ইউএনও টিএমএ মমিন বলেন, তদন্ত প্রতিবেদনে পাওয়ার পর ৩ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল করে অপেক্ষমান তালিকা থেকে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। পাশাপাশি জড়িত শিক্ষক-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদনটি প্রেরন করা হয়েছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *