প্রশ্নফাঁস ও ভর্তি জালিয়াতি : ঢাবির ৬৩ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার

প্রশ্নফাঁস ও ভর্তি জালিয়াতি : আজীবন বহিষ্কার ঢাবির আরও ৬৩ শিক্ষার্থী

প্রশ্নপত্র ফাঁস ভর্তি জালিয়াতির দায়ে আরও ৬৩ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আজ (মঙ্গলবার, ১৪ জানুয়ারি) শৃঙ্খলা পরিষদের বৈঠকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত এসেছে। জালিয়াতির ঘটনায় এ নিয়ে আজীবন বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৭৮ জনে। এছাড়া সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে আরও ৯ জনকে। ৭ দিনের মধ্যে তাদের শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশ্ন ফাঁস মামলায় ১২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট দেয় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ, সিআইডি। আসামিদের মধ্যে ৮৭ জনই ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

এ ঘটনায় জড়িত ১৫ জনকে আগেই আজীবন বহিস্কার করেছিল কর্তৃপক্ষ। বাকিদের কারণ দর্শাতে নোটিশ দেয়। জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় আরও ৬৩ জনকে স্থায়ী বহিস্কার করতে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী জানান, বৈঠকে প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতি নিয়ে আজকের বৈঠকে আলোচনা হবে। বৈঠকে আলোচনা শেষে যে সিদ্ধান্তটি হবে সেটি সিন্ডিকেটে যাবে। সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর।

২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে এই তদন্ত শুরু হয়। গ্রেফতার হয় ৪৭ জন। প্রকাশ পায় ভর্তি জালিয়াতির চাঞ্চল্যকর সব তথ্য। আজীবন বহি:স্কারের সিদ্ধান্তের মাধ্যমে জালিয়াতির বিরুদ্ধে নিজেদের কঠোর অবস্থান নিশ্চিত করতে চায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *