ফের সচল হয়ে উঠেছে লক ডাউনে বন্ধ থাকা পার্বতীপুর মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্প

ফের সচল হয়ে উঠেছে লক ডাউনে বন্ধ থাকা পার্বতীপুর মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্প

আল মামুন মিলন, পার্বতীপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি
দেশের একমাত্র কঠিন শিলা মধ্যপাড়া খনি প্রকল্প দীর্ঘ ৪ মাস লক ডাউনে থাকার পর ফের সচল হয়ে উঠেছে। খনি শ্রমিকরা কাজে যোগদান করার পর থেকে এই সচল প্রক্রিয়া শুরু হয়।
মহামারী করোনার বিস্তার রোধে গত ২৬ মার্চ লকডাউন ঘোসনা করে কার্যক্রম ব›ধ করে দেয়া হয়। এতে খনিতে ৩ সিফটে কর্মরত প্রায় ১ হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে পড়ে। দীর্ঘ ৪ মাস কর্মহীন হয়ে পড়া শ্রমিকরা বেকার ভাতার দাবীতে দফায় দফায় আন্দোলন কর্মসচী অব্যাহত রাখে। ফলে নানা অচলাবস্থার সৃষ্টিি হয় খনি এলাকায়। অবশেষে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপে ১৩২ দিন পর গত বুধবার থেকে শ্রমিকদের কাজে যোগদান শুরু হয়। কাজ শুরুর ১ সপ্তাহের মধ্যে খনি থেকে পর্যাক্রমে তিন সিফটে পাথর উত্তোলন হবে বলে খনি কর্তৃপক্ষ জানান।
খনি সুত্রে জানা যায়, করোনা ভাইরাস সংক্রোমন রোধে সরকার সাধারন ছুটি ঘোসনা করলে খনির উৎপাদন রক্ষনাবেক্ষন ও পরিচালনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি গত ২৬ মার্চ থেকে খনি থেকে পাথর উত্তোলন ব›ধ রাখে। পরে সাধারন ছুটি শেষে দেশের বিভিন্ন কলকারখানা চালু হলেও বিদেশী প্রকৌশলী থাকায় মধ্যপাড়া খনির উৎপাদন বন্ধ রাখা হয়। এরই মধ্যে জেটিসি খনির উৎপাদন শুরু করার লক্ষে শ্রমিক প্রতিনিধিদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রাখে। এদিকে শ্রমিকরা বেকার ভাতা সহ ৬ দফা দাবী পুরনে অনড় থাকে। এক পর্যায়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাড. মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারের হস্তক্ষেপে পার্বতীপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দের মাধ্যমে শ্রমিকদের সাথে ফলপ্রসু আলোচনা শেষে শ্রমিকরা কাজে যোগদান করে। অব্যাহত লোকসানের মুখে খনি প্রকল্পটি বন্ধ হওয়ার উপক্রম হলে মদ্যপাড়া খনির উৎপাদন রক্ষনাবেক্ষন ও পরিচালনাকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে জার্মানিয়া ট্রেষ্ট কনসোটিয়ামকে (জিটিসি) দায়িত্ব দেয়া হয়। জিটিসি ২০১৪ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী থেকে খনিটি পরিচালনা করে আসছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *