বগুড়ার গাবতলী দূর্গাহাটায় প্রতারণা শিকার কৃষক পরিবার

পীরগঞ্জে সহকারী কমিশনার ভুমি’র স্বাক্ষর জাল করে ধরা পড়েছে ভেস্টেড প্রপার্টি

বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার গাবতলী দূর্গাহাটা লালখাপাড়া গ্রামের কৃষক বাবর আলী আকন্দ কাতার দেশে গিয়ে চাকুরী না পেয়ে প্রতারণা শিকার হয়ে দেশে ফিরে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
অভিযোগ সূত্র জানায়, গত ১বছরপূর্বে লালখাপাড়া গ্রামের মৃত তজিবর আকন্দের পুত্র দরিদ্র কৃষক বাবর আলী’কে কাতার দেশে ‘বেশী টাকা বেতনের’ চাকুরী প্রলোভন দেয় বিবাদী একই গ্রামের সাজু ও তাঁর পিতা আব্দুল বারী এবং সাজু’র স্ত্রী শামীমা আক্তার। এরপর বাবর আলী বিদেশ যাওয়ার জন্য সাজুর নিকট নগদ ৫লক্ষ টাকা প্রদান করলে তারা বাবর’কে ২মাসপর কাতার দেশে পাঠাইয়া দেয়। সেখানে বারব আলী দূীর্ঘ ১১মাসেও কোন কাজ-কর্ম বা চাকুরী না পেয়ে দিশাহারা ও কর্ম জীবনযুদ্ধে পরাজিত হয়ে আবারো দেশে ফিরে আসেন। অবশেষে বাবর আলী বাব বার সাজু পরিবারের নিকট থেকে টাকা ফিরত চাইলে তারা (বিবাদীপক্ষ) তালবাহানা ও বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে। এ ঘটনায় স্থানীয় গর্ন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও ইউপি সদস্যগন গ্রাম্যশালিস বৈঠকে বসলে বিবাদী সাজু ১লক্ষ ৪০হাজার টাকা দেওয়ার কথা স্বীকার করলেও পরবর্তীতে তাঁরা (বিবাদীপক্ষ) উক্ত শালিস মানে নাই মর্মে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। গাবতলী থানার এসআই খোরশেদ আলম এ ঘটনায় অভিযোগ দায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরদিকে, (দূর্গাহাটা ইউনিয়নের সচেতনমহল ও এলাকাবাসী) জানান, দূর্গাহাটা ইউনিয়নে টাউট ও বাটপারদের সংখ্যা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে ইউনিয়নের অসহায় মানুষগুলো নানাভাবে হয়রানী ও অর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। গ্রাম্য শালিস বৈঠকের নামে চলছে ‘শালিসী অর্থ বানিজ্য’। যেকোন ঘটনা বা অভিযোগ হলেই তাঁরা কোন না কোন পক্ষ নিয়ে বিপদগামী পরিবারের পাশে দাড়িয়ে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে তাদের কে নানাভাবে প্রতারনা-হয়রানী ও ক্ষতিগ্রস্থ করছে। ফলে ওই ইউনিয়নে অপ্রীতিকর ঘটনা বেড়েই চলছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *