বিতর্ক অঙ্গনে প্রথম জাতীয় পুুরস্কার পেল বেরোবি

বিতর্ক অঙ্গনে প্রথম জাতীয় পুুরস্কার পেল বেরোবি

যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার বিষয়ক বিতর্ক প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিবেট অ্যাসোসিয়েশন (ব্রুডা)। যুক্তির মাধ্যমে নবজাগরণ ঘটাতে এটি ব্রুডার জাতীয় অর্জন। ‘বিতর্ক অন্বেষণ’ শিরোনামে গ্র্যান্ড ফাইনালে ‘কেবল পুরুষতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থা নয়, যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষার অভাবে নারীর মর্যাদা ক্ষুন্ন হচ্ছে’ বিষয়ে ঢাকা বিভাগকে হারিয়ে রংপুর বিভাগ চ্যাম্পিয়ন হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর এফডিসিতে ব্রাক ও ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির আয়োজনে এবং রাইট হেয়ার রাইট নাউ এর সৌজন্যে ছায়া সংসদের আদলে প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়। ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহের সভাপতিত্বে স্পিকার হিসেবে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী (কিরণ)।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, স্বাস্থ্য শিক্ষার অন্যতম বিষয় যৌন ও প্রজনন শিক্ষা। সরকার বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে এ বিষয়ে নানামুখী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। ১৮ বছরের কম বয়সের অবিবাহিত অস্বচ্ছল মেয়েদের সরকার বিনা মূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেবে। নিরাপদ স্যানিটেশনের বিষয়টি সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে এবং নতুন করে স্থাপিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক টয়লেটের ব্যবস্থা করবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, দেশে এখনো অপরিণত নবজাতকের মৃত্যুহার ৭০ শতাংশ। এ ছাড়া বাল্যবিবাহের কারণে প্রতি এক লাখ জন্মদানের ক্ষেত্রে ১৬৯ জন প্রসূতির মৃত্যু হচ্ছে। এটি ৭০ জনে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রায় তিন কোটি শিশুকে এ বছর টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। নারী শিক্ষার প্রসার এবং যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা স¤প্রসারণের মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়ন ও সামাজিক মর্যাদা সুরক্ষার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব অলী নূর ও ব্র্যাক শিক্ষা কর্মসূচির পরিচালক ড. শফিকুল ইসলাম। প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন অধ্যাপক আবু রইস, ড. এস এম মোর্শেদ, সাংবাদিক নাদিয়া শারমিন, সাংবাদিক আতাউর রহমান কাবুল ও জিনিয়া কবির সূচনা।

প্রতিযোগীতায় বিতর্কে বিতার্কিক হিসেবে ছিলেন ব্রুডার সদস্য মো. আসাদুজ্জামান আবীর, তাহমিনা কায়সার হিমা, নুশরাত জাহান নিশাত, মাকছুদুল হাসান অনÍর, সাংসদ লাবনী আক্তার।অনুষ্ঠান শেষে চ্যাম্পিয়ন দল বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিবেট অ্যাসোসিয়েশন ব্রুডার বিতার্কিকদের হাতে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি ও রাইট হেয়ার রাইট নাউ এর পক্ষ থেকে নগদ ৫০হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়।

ব্রুডার সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান আবীর বলেন, এটিই বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিতর্ক অঙ্গনে প্রথম জাতীয় প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়া। এটা আমাদের গৌরব। এর ধারা অব্যাহত রাখতে চাই।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *