ভারতে আরও ১১৮টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ

ভারতে আরও ১১৮টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ

সীমান্ত নিয়ে উত্তেজনার মধ্যেই আরও ১১৮টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ভারত।

বার্তাসংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জনপ্রিয় ভিডিও গেম পাবজিসহ চীনা ইন্টারনেট জায়ান্ট টেনসেন্ট- এর অন্যান্য অ্যাপসগুলো নিষিদ্ধ করেছে ভারত।

ভারত সরকার জানায়, চীনা অ্যাপগুলো ‘ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা, প্রতিরক্ষা, রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা ও আইনশৃঙ্খলা’ বিরোধী কাজ করছে।

ভারতে কয়েক মিলিয়ন তরুণ পাবজি মোবাইল অ্যাপটি ব্যবহার করেন। প্রতিষ্ঠানটি বলেছে, ভারত সরকারের এমন পদক্ষেপ সম্পর্কে তারা সচেতন ছিলেন। তবে এ নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি এখন পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেনি।

বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় গেম পাবজি দক্ষিণ কোরিয়ার একটি প্রতিষ্ঠানের তৈরি হলেও গেমিং অ্যাপটির যে মোবাইল সংস্করণ চালু হয়েছে তা টেনসেন্টের তৈরি।

ভারতে নিষিদ্ধ হওয়া অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে গেমস, অনলাইন পেমেন্ট সার্ভিস, ডেটিং সাইট ও সেলফি এডিট করার সফটওয়্যারও আছে।

১৯৬২ সালে সীমান্ত নিয়ে যুদ্ধের পর সম্প্রতি ভারত ও চীনের মধ্যে বিতর্কিত সীমান্ত নিয়ে একাধিক সংঘর্ষ ও শোডাউনের ঘটনা ঘটেছে।

গত জুন মাসে লাদাখে চীনা বাহিনীর হাতে অন্তত ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর ২৯ জুন টিকটক, শেয়ার ইট-সহ ৫৯টি চাইনিজ অ্যাপ নিষিদ্ধ করে ভারত।

তার কিছুদিন পরে ওই অ্যাপগুলোর সহযোগী আরও ৪৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।

ভারতের তথ্য মন্ত্রণালয়, চীনের বিরুদ্ধে এই অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারকারীদের ডেটা চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছে।

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৬৯ অনুচ্ছেদের আওতায় চীনা অ্যাপগুলো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এর ফলে কোটি কোটি ভারতীয় নাগরিকের মোবাইল ও ইন্টারনেট সুরক্ষা নিশ্চিত করবে বলে দাবি করে দেশটির কেন্দ্রীয় মন্ত্রণালয়।

এখন পর্যন্ত সবমিলিয়ে ভারতে ২২৪টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ হলো।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *