যাতায়াত নৈরাজ্য বন্ধে প্রাইভেটকার নয় গণপরিবহনের প্রাধান্য দাও, ভাড়া ও যাত্রী দুর্ভোগ কমাও

ডেস্কঃ নগরীর পরিবহন ব্যবস্থায় চলছে চরম নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি। ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকেও কোন যানবাহন পাওয়া যায় না। যান পেলেও যানজটে মহামূল্যবান সময়ের অপচয় হচ্ছে। যথাসময়ে রোগীকে হাসপাতালে পৌঁছানো যাচ্ছে না, সঠিক সময় মেনে শিক্ষার্থীরা সময়মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না। দীর্ঘ প্রতীক্ষায় সিএনজি বা ট্যাক্সি পেলেও তাতে স্বাভাবিক ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুণ বা তিনগুণ বেশি ভাড়ায় যেতে হচ্ছে। বাস স্বল্পতার জন্য ধাক্কাধাক্কি করে বাসে উঠতে পারা সৌভাগ্যের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মহিলা যাত্রীদের পক্ষে ভদ্রোচিতভাবে যাতায়াত কঠিন হয়ে পড়েছে। অধিকাংশ প্রধান সড়কে রিক্সা চলাচল নিষিদ্ধ করায় শিশূ, বয়স্ক, অসুস্থ, মহিলা কিংবা গৃহস্থালি মালামাল নিয়ে সাধারণ মানুষ দারুণ বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। পাশাপাশি গণপরিবহনের ভাড়া নিয়ন্ত্রীনহীনভাবে বাড়ছে। যত্রতত্র প্রাইভেট গাড়ি পার্কিং করায় ফুটপাত দিয়ে হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়েছে, বেড়ে গেছে দূর্ঘটনা। শুধু বড় রাস্তায় নয় ছোট ছোট গলিতেও যানজটের ফলে মানুষ অতিষ্ট।
নগরীর পরিবহন ব্যবস্থায় চলছে চরম নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি। ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকেও কোন যানবাহন পাওয়া যায় না। যান পেলেও যানজটে মহামূল্যবান সময়ের অপচয় হচ্ছে। যথাসময়ে রোগীকে হাসপাতালে পৌঁছানো যাচ্ছে না, সঠিক সময় মেনে শিক্ষার্থীরা সময়মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না। দীর্ঘ প্রতীক্ষায় সিএনজি বা ট্যাক্সি পেলেও তাতে স্বাভাবিক ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুণ বা তিনগুণ বেশি ভাড়ায় যেতে হচ্ছে। বাস স্বল্পতার জন্য ধাক্কাধাক্কি করে বাসে উঠতে পারা সৌভাগ্যের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মহিলা যাত্রীদের পক্ষে ভদ্রোচিতভাবে যাতায়াত কঠিন হয়ে পড়েছে। অধিকাংশ প্রধান সড়কে রিক্সা চলাচল নিষিদ্ধ করায় শিশূ, বয়স্ক, অসুস্থ, মহিলা কিংবা গৃহস্থালি মালামাল নিয়ে সাধারণ মানুষ দারুণ বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। পাশাপাশি গণপরিবহনের ভাড়া নিয়ন্ত্রীনহীনভাবে বাড়ছে। যত্রতত্র প্রাইভেট গাড়ি পার্কিং করায় ফুটপাত দিয়ে হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়েছে, বেড়ে গেছে দূর্ঘটনা। শুধু বড় রাস্তায় নয় ছোট ছোট গলিতেও যানজটের ফলে মানুষ অতিষ্ট।

নগরীর পরিবহন ব্যবস্থায় চলছে চরম নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি। ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকেও কোন যানবাহন পাওয়া যায় না। যান পেলেও যানজটে মহামূল্যবান সময়ের অপচয় হচ্ছে। যথাসময়ে রোগীকে হাসপাতালে পৌঁছানো যাচ্ছে না, সঠিক সময় মেনে শিক্ষার্থীরা সময়মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না। দীর্ঘ প্রতীক্ষায় সিএনজি বা ট্যাক্সি পেলেও তাতে স্বাভাবিক ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুণ বা তিনগুণ বেশি ভাড়ায় যেতে হচ্ছে। বাস স্বল্পতার জন্য ধাক্কাধাক্কি করে বাসে উঠতে পারা সৌভাগ্যের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মহিলা যাত্রীদের পক্ষে ভদ্রোচিতভাবে যাতায়াত কঠিন হয়ে পড়েছে। অধিকাংশ প্রধান সড়কে রিক্সা চলাচল নিষিদ্ধ করায় শিশূ, বয়স্ক, অসুস্থ, মহিলা কিংবা গৃহস্থালি মালামাল নিয়ে সাধারণ মানুষ দারুণ বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। পাশাপাশি গণপরিবহনের ভাড়া নিয়ন্ত্রীনহীনভাবে বাড়ছে। যত্রতত্র প্রাইভেট গাড়ি পার্কিং করায় ফুটপাত দিয়ে হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়েছে, বেড়ে গেছে দূর্ঘটনা। শুধু বড় রাস্তায় নয় ছোট ছোট গলিতেও যানজটের ফলে মানুষ অতিষ্ট।

নগরীর পরিবহন ব্যবস্থায় চলছে চরম নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি। ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকেও কোন যানবাহন পাওয়া যায় না। যান পেলেও যানজটে মহামূল্যবান সময়ের অপচয় হচ্ছে। যথাসময়ে রোগীকে হাসপাতালে পৌঁছানো যাচ্ছে না, সঠিক সময় মেনে শিক্ষার্থীরা সময়মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না। দীর্ঘ প্রতীক্ষায় সিএনজি বা ট্যাক্সি পেলেও তাতে স্বাভাবিক ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুণ বা তিনগুণ বেশি ভাড়ায় যেতে হচ্ছে। বাস স্বল্পতার জন্য ধাক্কাধাক্কি করে বাসে উঠতে পারা সৌভাগ্যের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মহিলা যাত্রীদের পক্ষে ভদ্রোচিতভাবে যাতায়াত কঠিন হয়ে পড়েছে। অধিকাংশ প্রধান সড়কে রিক্সা চলাচল নিষিদ্ধ করায় শিশূ, বয়স্ক, অসুস্থ, মহিলা কিংবা গৃহস্থালি মালামাল নিয়ে সাধারণ মানুষ দারুণ বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। পাশাপাশি গণপরিবহনের ভাড়া নিয়ন্ত্রীনহীনভাবে বাড়ছে। যত্রতত্র প্রাইভেট গাড়ি পার্কিং করায় ফুটপাত দিয়ে হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়েছে, বেড়ে গেছে দূর্ঘটনা। শুধু বড় রাস্তায় নয় ছোট ছোট গলিতেও যানজটের ফলে মানুষ অতিষ্ট।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *