রাজারহাটে সহকারি গ্রন্থাগারিক পদে জাল সনদে চাকুরির ঘটনায় তোলপাড়

রাজারহাটে সহকারি গ্রন্থাগারিক পদে জাল সনদে চাকুরির ঘটনায় তোলপাড়

এ.এস লিমন,রাজারহাট(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ডাংরারহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী গ্রন্থাগারিক পদে জাল সনদ দিয়ে চাকুরি নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আইনগত ব্যবস্থা নেয়ায় প্রধান শিক্ষক মো. সেকেন্দার আলীর উপর হামলা চালিয়েছে সহকারি গ্রন্থাগারিক মো. আব্দুল হাকিম সবুজ বসুনিয়া। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রি: উক্ত বিদ্যালয়ে সহকারি গ্রন্থাগারিক পদে যোগদান করেন মোঃ আব্দুল হাকিম সবুজ বসুনিয়া(২৮)। চাকুরিতে যোগদানের পর বেতন প্রাপ্তির লক্ষ্যে অনলাইনের মাধ্যমে গত ৪-৪-২০১৯ খ্রি: তার প্রয়োজনীয় কাগজ-পত্রসহ বিল প্রেরণ করলে রংপুর অঞ্চল মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মো. আক্তারুজ্জামান গত ২১-০৫-২০১৯ খ্রিঃ বিলটি বাতিল করে তার গ্রন্থাগারিক সনদটি যাচাই করার জন্য ঢাকা রয়েল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠিয়ে দেন। তার গ্রন্থাগারিক সনদের আইডি নং ১৬০৩১৭১২৩৭ পাশের সন ২০১৭ খ্রিঃ রয়েল কর্তৃপক্ষ তার সনদটি যাচাই-বাছাই করে জাল সনদ প্রমাণিত হয়। তার গ্রন্থাগারিক সনদটি জাল প্রমাণিত হলে রংপুর অঞ্চল মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মো. আক্তারুজ্জামান গত ২১-০৭-২০১৯খ্রি: আব্দুল হাকিম সবুজ বসুনিয়াকে জাল সনদের নোটিশ প্রদান করেন। পরবর্তীতে উপ পরিচালক জাল সনদটির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রধান শিক্ষক মো.সেকেন্দার আলী ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির নিকট নোটিশ পাঠিয়ে দেন। এরই প্রেক্ষিতে প্রধান শিক্ষক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করলে আব্দুল হাকিম সবুজ বসুনিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠি শোটা নিয়ে প্রধান শিক্ষকের উপর হামলা চালায় ওই সময় প্রতিষ্ঠানে মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠান চলছিল। হামলা করে অফিস কক্ষে প্রধান শিক্ষককে তালা দিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে। হামলায় প্রধান শিক্ষক মো. সেকেন্দার আলী গুরুত্বর আহত হয়। খবর পেয়ে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহা: যোবায়ের হোসেন ও থানা অফিসার ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার ঘটনাস্থলে গিয়ে তার অফিস কক্ষের তালা ভেঙ্গে প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করে এবং আব্দুল হাকিম সবুজ বসুনিয়াকে তাৎক্ষণিক গ্রেপ্তার করে কুড়িগ্রাম জেল হাজতে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক বাদী হয়ে সন্ধ্যায় আব্দুল হাকিম সবুজ বসুনিয়াকে প্রধান আসামী করে অজ্ঞাত নামীয় আরো ৪/৫ জনকে আসামী করে রাজারহাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং – ১২, তাং ২১-০২-২০২০ইং। এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশরাফ- উজ-জামান বলেন, ভূয়া সনদ দিয়ে কেউ অপকর্ম করলে তার চাকুরি চলে যাবে এবং তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত ২ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কুড়িগ্রাম জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্তদের খুঁজতে পুলিশের অভিযান চলছে। সংশ্লিষ্ট কেউ আইনের বাহিরে নন। শনিবার বিকালে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সন্ত্রাসী হামলায় আহত প্রধান শিক্ষক মো. সেকেন্দার আলীর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *