রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিন্ধান্ত বাতিল করে জাতীয়স্বার্থে পাটকল চালু রেখে আধুনিকায়ন ও লাভজনক করার দাবী প্রগতিশীল সংগঠনের

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিন্ধান্ত বাতিল করে জাতীয়স্বার্থে পাটকল চালু রেখে আধুনিকায়ন ও লাভজনক করার দাবী প্রগতিশীল সংগঠনের

ডেস্কঃ প্রগতিশীল সংগঠনসমূহের উদ্যোগে আজ ৪ জুলাই বিকালে শাহবাগ প্রজন্ম চত্বরে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিন্ধান্ত বাতিল করে জাতীয়স্বার্থে পাটকল চালু রেখে আধুনিকায়ন ও লাভজনক করার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। কৃষক সমিতিসহ সভাপতি প্রকৌশলী নিমাই গাঙ্গলীর সভাপতিত্বে ও যুব ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম-এর পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য ক্বাফী রতন, ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি ডা. ফজলুর রহমান, উদীচীর সাধারণ সম্পাদক জামশেদ আনোয়ার তপন, সাবেক ছাত্রনেতা আকরামুল হক, লেখক প্রকাশক রবীন আহসান, ইএইডি সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী রাসেদুল হাসান রিপন, গার্মেন্ট শ্রমিকনেতা সাদিকুর রহমান শামীম, সাবেক ছাত্র নেতা লিটন নন্দী, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল, হকার্স ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন, প্রমুখ।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধ সহ ১৯৫০ দশক থেকে অধ্যাবধি প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার পাশাপাশি এদেশের অর্থনীতিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে পাটকলগুলো। পাটশিল্পের সাথে পাটচাষীসহ কোটি কোটি মানুষ জড়িত, পিপিপি বা ব্যাক্তি মালিকানায় হস্তান্তরের নামে কতিপয় লুটপাটকারী পুঁজিপতির স্বার্থ হাসিলের লক্ষ্যে পাটকল বন্ধ দেশের জন্য মারাত্মক আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত।
১৯৮৪ সালে পাটকল শ্রমিকনেতা শহীদ তাজুল ইসলাম জীবন দিয়ে এদেশের শ্রমিকদের দাবি আদায় করেছিল, ১৯৯৪ সালে বিশ্ব ব্যাংক ও আই এম এফ এর সাথে চুক্তি করে সরকার পাটকল বন্ধ করতে চাইলে শ্রমিকরা লড়াই করে ১৭ জন শ্রমিক জীবন দিয়ে পাট শিল্প রক্ষা করেছিল। এবারেও শ্রমিক ও সংশ্লিষ্ট পক্ষে সাথে কোনো প্রকার আলোচনা ছাড়াই হঠাৎ করে পাটকল বন্ধের এই গণবিরোধী সিদ্ধান্ত পাটকল শ্রমিক ও দেশবাসী মেনে নিবে না, সরকারের এমন আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত গার্মেন্টসহ অপরাপর ব্যাক্তিমালিকানাধীন শিল্পের মালিকদেরকে শ্রমিক ছাঁটাই এবং কারখানা বন্ধের জন্য উৎসাহীত করবে। এমতাবস্থায় ৬ হাজার কোটি টাকা খরচ করে পাটশিল্প বন্ধ না করে শ্রমিক পক্ষের প্রস্তাব অনুযায়ী ১ হাজার কোটি টাকা খরচ করে মিলগুলো আধুনিকায়ন ও লাভজনক করার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।
অবিলম্বে পাটকল শ্রমিকদের ন্যায়সংগত দাবি ও পাটচাষিদের বাঁচাতে পাটশিল্প দুর্নীতি মুক্ত করে আধুনিকায়ন করে শ্রমিক ও কৃষক বাঁচতে দেশবাসীকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।
অবিলম্বে পাটকল বন্ধ করে বেসরকারি খাতে তুলে দেয়ার সরকারের গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিল করার দাবি জানান।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *