- জাগো বাহে 24 - http://www.jagobahe24.com -

সুন্দরগঞ্জে গমের বাম্পার ফলন কৃষকের মুখে হাসি

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় চলতি মৌসুমে গমের বাম্পার ফলন দেখা দিয়েছে। আবহাওয়া অনকূলে থাকায় ফলন ভাল হয়। সে কারণে কৃষকের মুখে হাসি দেখা দিয়েছে। চলতি অর্থ বছরে রাজস্ব প্রকল্পের আওতায় উপজেলায় ২৫ জন কৃষক গম প্রর্দশনীর চাষাবাদ করেছে।
ইতিমধ্যে গম কাঁটামারি শুরু করেছে কৃষকরা। গতকাল রোববার উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সৈয়দ রেজা-ই-মাহমুদ উপজেলার জরমনদী গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের প্রদর্শনী গম ক্ষেতের কাঁটামারাই উদ্বোধন করেন। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ১ হাজার ১৫০ হেক্টর জমিতে গম চাষাবাদ হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় অনেক বেশি। গত বছর গম চাষাবাদ হয়েছিল ৮০০ হেক্টর জমিতে।
কথা হয় শান্তিরাম ইউনিয়নের গম চাষি তারা মিয়ার সাথে। তিনি বলেন এ বছর শিলাবৃষ্টি না হওয়ায় গমের আবাদ এবং ফলন ভাল হয়েছে। তিনি দেড় বিঘা জমিতে গম চাষ করেছে। আশা করছেন ১৭-১৮মন গম পাবে। এতে তার খরচ হয়েছে ৫ হাজার টাকা। উৎপাদিত গমের আনুমানিক দাম ১৮-২০ হাজার টাকা। তিনি বলেন ধান চাষাবাদের খরচের চেয়ে গম চাষাবাদে খরচ অনেক কম। বেশিভাগ গম চাষ হয়েছে চরাঞ্চলে। উপজেলার তারাপুর, বেলকা, হরিপুর, চন্ডিপুর, শ্রীপুর ও কাপাসিয়া ইউনিয়নের উপর দিয়ে প্রবাহিত তিস্তার চরাঞ্চল এখন সবুজের সমারহে পরিণত হয়েছে। বিভিন্ন পদ্ধতি প্রয়োগ করে নানাবিধ ফসলের চাষাবাদ করছে কৃষকরা।
উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সৈয়দ রেজা-ই মাহমুদ জানান, এই উপজেলার মানুষ কৃষি বান্ধব। বিশেষ করে তিস্তার চরাঞ্চলসহ গোটা উপজেলার বেশ কিছু এলাকা রবি ফসল চাষাবাদের জন্য অত্যন্ত উপযোগি। তিনি মনে করেন ধান চাষাবাদের চেয়ে ভিন্ন প্রকার রবি মৌসুমের ফসল চাষে ব্যাপক লাভ। চলতি মৌসুমে গমের ভাল ফলন হয়েছে।