১৪ ডিসেম্বর ইতিহাসের কালো অধ্যায়: অর্থমন্ত্রী

১৪ ডিসেম্বর ইতিহাসের কালো অধ্যায়: অর্থমন্ত্রী

১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। পৃথিবীর ইতিহাসের এক কালো অধ্যায়। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে বাঙালি বুদ্ধিজীবী নিধন ইতিহাসে নৃশংস ও বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞ। জাতি যখন বিজয়ের খুব কাছে সেই সময় পাকিস্তানি বাহিনীর সহযোগিতায় রাজাকার, আলবদর, আল শামস বাহিনী দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হত্যা করে।

শনিবার কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য অনুদান চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ করে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এসব কথা বলেন। উপজেলা প্রশাসন অডিটোরিয়ামে অনুদান চেক বিতরণ করা হয়।মুস্তফা কামাল বলেন, ইতিহাসের জঘন্য হত্যাকাণ্ড চালায় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। বাঙালি শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক, সাহিত্যিক, চিকিৎসক, বিজ্ঞানী, আইনজীবী, শিল্পী, দার্শনিক ও রাজনৈতিক চিন্তাবিদগণ এই সুপরিকল্পিত হত্যাযজ্ঞের শিকার হন। স্মরণ করি একাত্তরে অকালে প্রাণ হারানো জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের। বুদ্ধিজীবী হত্যার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অনেকের বিচারের রায় কার্যকর হয়েছে। এরমধ্যে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত অনেকের বিরুদ্ধে ফাঁসির রায় ঘোষিত হয়েছে।অর্থমন্ত্রী বলেন, যেসব রোগী জটিল রোগে আক্রান্ত তারা যেমন সর্বস্বান্ত, তেমনি পরিবার আর্থিকভাবে নিঃস্ব হয়ে থাকে। তাই সরকার ক্ষমতায় আসার পর জটিল রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের কথা চিন্তা করে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সমাজসেবা অধিদফতরের পরিচালিত ক্যান্সার, কিডনি, লিভার সিরোসিস, স্ট্রোকে প্যারালাইস ও জন্মগত হৃদরোগীর আর্থিক সহায়তা কর্মসূচির আওতায় প্রতি বছর আর্থিক সাহায্য প্রদান করে আসছে। যা একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- নাঙ্গলকোট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সামসুদ্দিন কালু, পৌরসভার মেয়র আব্দুল মালেক, ভাইস চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ, সমাজসেবা অধিদফতরের কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লামইয়া সাইফুলসহ প্রমুখ।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *