নতুন রুপে আসছে রেশমী অ্যালন (ভিডিও) সহ

খোলামেলা পোশাকে ফটোশ্যুট করে ঢালিউডে জায়গা করে নিতে চলেছেন বাংলাদেশের  মডেল রেশমী অ্যালন। ইতিমধ্যে তিনি খোলামেলা পোশাকে বেশ কয়েকবার ক্যামেরাবন্দি হয়েছেন। আর সেসব ছবি আপলোড করছেন তার ফেসবুক ক্যামেরার সামনে খোলামেলা পোশাকে দাঁড়ানোর কাছে অন্য কেউ জায়গা করতে পারছেন না। তার এসব ফটোশ্যুটের জন্য ঢালিউডে চলছে আলোচনার ঝড়। তবে রেশমী সব কিছুকে পিছনে ফেলে এগিয়ে চলেছেন সামনের দিকে।

তিনি বর্তমান সময়ে সাহসী ষ্ট্যাটাস দেন ফেসবুকে  ; এতো সুন্দর দেহের কি দাম বলো?যদি সবাই উপভোগই না করতে পারে?

পোষ মাসে খেজুর গাছে যেমন রস চুয়ে চুয়ে ভেসে পড়ে” তেমনি আমার দেহের রস চুয়ে চুয়ে ভেসে পড়ে। (ভিডিও)

রেশমী প্রথম মিজানুর রহমানের ‘ধ্বংস মানব’ ও তারেক মাহমুদের ‘চটপটি’ সিনেমায় কাজ করেছেন। এসব সিনেমায় তিনি আইটেম গানে অভিনয় করে পরিচালকদের মন জয় করতে পেরেছেন। পরবর্তীতে তিনি আলমগীর হোসেনের ‘পরকীয়া’ নামের আরেকটি সিনেমায়ও আইটেম গানে অভিনয় করেন। আর সে থেকে রেশমীকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। তিনি এখন কেবলই সামনের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছেন।  সাম্প্রতিক সময়ে তিনি শেখ সেলিমের পরিচালনায় পৃথিবীর নিয়তি ড্যান্স ডিরেক্টর মাইকেল বাবু ও রতন। 

রেশরেশমী সিনেমায় শরীর দেখানোকে একটা আর্ট মনে করে বলেন, যার যে দৃষ্টি সে ঠিক ঐভাবে দেখবে। ভাল দৃষ্টিতে দেখলে ভাল লাগবে। আর খারাপ দৃষ্টিতে দেখলে খারাপ লাগবে। তিনি বলেন, চলচ্চিত্র সংস্কৃতি খুবই শক্তিশালী বিষয়। সিনেমা মানেই একটি নতুন বাস্তবতা। কখনো তা ম্যাজিক, ফ্যান্টাসি, আবার কখনো একেবারে নিখাদ বাস্তবতা। আমাদের চারপাশের ঘটনার চরিত্রগুলো ফুটিয়ে তুলার চেষ্টার মাধ্যম হচ্ছে সিনেমা। খারাপকে পরাজিত দেখতে ভালো লাগে, সুন্দরকে ভালবাসতে, ভালোকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে জয়লাভ করতে দেখতে সবার ভালো লাগে।

১৯৯২ সালের ২ জানুয়ারী রেশমী নরসিংদীতে জন্ম গ্রহন করেন। বাবা, হানিফ খান একজন ব্যবসায়ী। মা, মাফিয়া বেগম গৃহিনী। তিনবোনের মধ্যে রেশমী বড়। গাজীপুর থেকে তিনি এইচএসসি পাশ করেছেন। বাবার ব্যবসার সুবাদে ঢাকাতেই বসবাস। নায়িকা শাবনুর, নায়ক রিয়াজ ও ফেরদৈাস রেশমরি পছন্দ। রেশমীর শখ ষ্টিল ফটোগ্রাফি এবং তিনি সময় পেলেই ফটো তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

      https://web.facebook.com/rasmialon77

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *