ঝালকাঠিতে জমি দখল করে ফসল কাটার অভিযোগ

ঝালকাঠিতে জমি দখল করে ফসল কাটার অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠির নলছিটিতে সাবেক ইউপি সদস্য ছোহরাবের বিরুদ্ধে জমি দখল করে রোপা ধান কেটে গরুকে খাওয়ানোর অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) সকালে উপজেলার রানাপাশা ইউনিয়নের ভেরনবাড়িয়া গ্রামের আ: হক মাঝির ৫২ কাঠা জমির বীজ ধান কেটে নেয় ছোহরাফ ও তার দলবল। ইউপি সদস্য ছোহরাব রানাপাশা ইউনিয়নের আনছার উদ্দিন মাঝির পুত্র। এদিকে ছোহরাফ মেম্বর বাগানের মধ্যে টং ঘর উঠিয়ে প্রতিনিয়ত অপরিচিত লোকজন এনে সেখানে আড্ডা বসায় বলেও অভিযোগ আছে। টং ঘরটি দেখতে সাংবাদিকরা বাগানে গেলে সেখানে ছোট্ট একটি টংয়ের অবস্থান দেখতে পান। অভিযোগ রয়েছে ওই টং ঘরে প্রায়ই গরু চোরদের আড্ডা বসে। জমির মালিক আ: হক মাঝি সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন পর্যন্ত ছোহরাব মেম্বারের সাথে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। বিরোধের জের ধরে জমি নিয়ে কোর্টে মামলা হয়। মামলার রায় আমার পক্ষে এসেছে। তাই জমি চাষ করে ফসল রোপনকরেছি। তবে ছোহরাব মেম্বার আমার জমি ভোগদখলে বাধা দেয় এবং বিভিন্ন সময়তার দলবল নিয়ে আমিসহ আমার ভাইদেরকে হুমকি ধমকি দেয়। গত বৃহস্পতিবার ছোহরা বমেম্বার তার দলবল নিয়ে আমার ২৫ কাঠা জমির ধান কেটে নিয়ে যায়। ধান কাটতে বাধা দিলে, আমার ভাই আবদুল রাজ্জাক ও খালেকের ওপর হামলা চালায়। হামলায়তারা দুজনই আহত হয়েছে। এঘটনায় তিনি আইনের অভিযোগ করবেন।এব্যপারে রানাপাশা ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন বলেন, ছোহরাব মেম্বার তার জমির রোপা ধান কেটে নিয়েছে। ঘটনার দিন আমি ওইস্থানে ছিলাম। জমি নিয়ে তাদের মধ্যে দির্ঘদিন পর্যন্ত বিরোধ চলছে। আমিউ ভয় পক্ষকে নিয়ে বিষয়টি মিমাংসার টেষ্টা করেছি। রানাপাশা ইউনিয়নের ভেরনবাড়িয়া আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি বলেন, জমি নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ ছিল, কোর্টের রায়ে জমি হক পেয়েছে। হকের জমির রোপা বীজ ধান কেটে নিয়েছে এ ঘটনা সত্যি। এ ব্যাপারে ছোহরাফ হোসেন ধান কাটার কথা অস্বীকার করে বাগানে টং ঘর প্রসংগে বলেন ওটা এমনিতেই করা হয়েছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *