বড় পুকুরিয়া খনির কয়লা উত্তোলন সাময়িক বন্ধ

বড় পুকুরিয়া খনির কয়লা উত্তোলন সাময়িক বন্ধ

আল মামুন মিলন, পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে কয়লা উত্তোলন সাময়িকভাবে বন্ধ রয়েছে। খনির উৎপাদনশীল ১৩১৪ নম্বর কোল ফেইজে মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ১০ দিন ধরে কয়লা উত্তোলন হচ্ছে না। উত্তোলন সচল রাখতে ১৩০৮ নম্বর ফেইজ থেকে কয়লা উত্তোলন পূনরায় শুরু করা হবে বলে জানানো হয়েছে। ১৩১৪ নম্বর ফেইজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি সরিয়ে ১৩০৮ নম্বর ফেইজে স্থাপন করে পুনরায় উত্তোলনে যেতে অন্ততঃ দেড় মাস সময় লাগবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
খনির ১৩১৪ নম্বর কোল ফেইজ থেকে কয়লা উত্তোলন শুরু হয় ২০১৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর। এ ফেইজ থেকে কয়লা উত্তোলন হয়েছে দুই লাখ ৮০ হাজার মেঃ টন। ১৩১৪ নম্বর ফেইসে ব্যবহৃত উৎপাদন যন্ত্রপাতি সরিয়ে ১৩০৮ নম্বর ফেইজে স্থাপনের কাজ দ্রুত গেিততে এগিয়ে চলেছে। বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএমসিএল) এর জনসংযোগ কর্মকর্তা (পিআরও) একেএম বদরুল আলমের সাথে এ বিষয়ে কথা হলে জানান, খনির কয়লা উৎপাদন বন্ধের বিষয়টি একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। উৎপাদনশীল ১৩১৪ নম্বর কোল ফেইজে উত্তোলনযোগ্য কয়লার মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ২১ জানুয়ারি থেকে খনির উৎপাদন বন্ধ রয়েছে।
তিনি বলেন, একটি ফেইজের কয়লা উত্তোলন শেষ হলে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি সরিয়ে নিয়ে নতুন ফেইজে স্থাপনের জন্য ৪০ থেকে ৪৫ দিন সময় লাগে। এছাড়া এসময়ে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ক্রটিবিচ্যুতি ধরা পড়লে মেরামতের জন্য বাড়তি সময়ের প্রয়োজন হয়। ফলে কয়লা উৎপাদন সাময়িক বন্ধ থাকে। কয়লা খনির সার্ফেস ভাগের কোল-ইয়ার্ডে বর্তমান ১০ থেকে ১২ হাজার মেঃ টন কয়লা মজুদ রয়েছে। নতুন ফেইজ চালু হলে এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *