গোলাপগঞ্জে ৭ দিন থেকে যুবক নিখোঁজ

গোলাপগঞ্জে ৭ দিন থেকে যুবক নিখোঁজ

শাহান আহমদ , গোলাপগঞ্জ (সিলেট)থেকে: গোলাপগঞ্জে ৭ দিন থেকে যুবক নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় নিখোঁজ দেলোয়ারের পরিবার থেকে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। সে উপজেলার আমুড়া ইউনিয়নের কদম রসুল গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে।
নিখোঁজ হওয়া দেলোয়ারের পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, দেলোয়ার হোসেন দিলু নির্মাণ কাজের (পাকা কাজ) ঠিকাদারী করে আসছিলেন দীর্ঘদিন থেকে। সর্বশেষ সিলেট নগরীর মাছিমপুর এলাকায় তিনি কাজ রেখে করছিলেন। দেলওয়ারের পিতা আব্দুল করিম জানান, সে গত শুক্রবার (১৫ মার্চ) কাজের কথা বলে সিলেট যায়। রাতে বাড়ীর ফেরার কথা থাকলেও ফোন করে আসবে না জানায়। পরেরদিন থেকে তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরটি বন্ধ দেখায়। পরে দুপুর ১২টার দিকে আবার ফোন খুললে সে বলে একটু সমস্যায় আছি রাতে বাড়ী আসব। এভাবে গত সোমবার পর্যন্ত যোগাযোগ হলেও এরপর থেকে শুক্রবার (২২ মার্চ) পর্যন্ত আর কোন যোগাযোগ করতে পারেননি পরিবারের সদস্যরা।
নিখোঁজ দেলোয়ার হোসেনের গ্রামের বাড়ী কদমরসুলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে দেলোয়ার হোসেন দিলুর পরিবারের লোকজন খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে এখন শুধু কান্নাকাটি করছেন তারা। যেকোন উপায়ে তারা দেলোয়ারকে জীবিত অবস্থায় ফেরৎ চায়। নিখোঁজ দেলোয়ার হোসেনের সাহাদাত হোসেন নামে ৭ বছরের এক পুত্র সন্তান রয়েছেন। দেলোয়ার হোসেন নিখোঁজের পর থেকে তার মা সুফিয়া বেগম ও বাবা আব্দুল করিম সহ পরিবারের লোকজনদের কান্নায় এলাকার আকাশ-বাতাশ ভারী হয়ে উঠছে। বর্তমানে এ পরিবারের লোকজন অনেকটা বন্ধ করে দিয়েছেন খাওয়া-দাওয়া।
সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় তার দু’চোখ থেকে অবিরাম ঝরছিল অশ্রু। তার বায়োবৃদ্ধ মা সুপিয়া বেগমকে ছেলের কথা জিজ্ঞেস করতেই তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এরপর বলেন আমি কিছু চাইনা, আমার ছেলে আমার কোলে ফিরে আসুক, সেটাই চাই।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে শুক্রবার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম ফজলুল হক শিবলী বলেন, আমরা তাকে উদ্ধার করতে সর্বাত্বক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে সব ধরণের চেষ্টা করা হচ্ছে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *