দিনাজপুরে সাংবাদিকের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, ক্যামেরা ছিনতাই

দিনাজপুরে সাংবাদিকের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, ক্যামেরা ছিনতাই

নিজস্ব প্রতিবেদক,রংপুর॥
দিনাজপুরের বীরগঞ্জে স্বপ্নতরী এগ্রো সার্ভিসেস লিমিটেড এর গ্রাহক হয়রানি ও প্রতারণার অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তৈরির সময় বার্তা২৪.কম এর রংপুর স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ফরহাদুজ্জামান ফারুক, ডিবিসি নিউজের রংপুর ব্যুরো চীফ নাজমুল ইসলাম নিশাত ও ক্যামেরা পারসন মহসীন আলীকে মারধর করে ক্যামেরা ছিনতাই করে নিয়েছে ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা।
আজ বুধবার পৌনে তিনটায় বীরগঞ্জের সুইসগেট এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে। উপজেলা ছাত্রলীগ যুগ্ন আহবায়ক ও বীরগঞ্জ পৌর মেয়রের ভাগিনা সাজিদুর রহমান অন্তু, স্বপ্নতরী এগ্রো সার্ভিসেস লিমিটেডের হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা শুভ সরকার ও অডিট অফিসার রাসেলের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এই হামলা চালান। এদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইয়ামিন হোসেন ও ভূমি কর্মকর্তা ঘটনার সময় সেখানে উপস্থিত থাকলেও তারা কোন পদক্ষেপ না নিয়েই দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়েন।
এঘটনায় দিনাজপুর প্রেস ক্লাব, রংপুর রিপোর্টার্স ক্লাব, রংপুর সাংবাদিক ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন রংপুসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতারা তীব্র নিন্দা জানিয়ে হামলাকারীদের গ্রেফতারসহ বিচার দাবি করেন।
এব্যাপারে বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছুই জানি না। তবে খোঁজ নিচ্ছি।’

বীরগঞ্জের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বলেন, ‘হামলাকারীরা যে দলেরই হোক, আমার চচোখে তারা দলীয় নয়। তারা সন্ত্রাসী। এ ধরনের কর্মকান্ড দল সমর্থন করে না। তাদের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উল্লেখ্য, বন্ধ হয়ে যাওয়া ডেসটিনির পিএসডিপ্রাপ্ত মানিক চন্দ্র বর্মণ স্বপ্নতরী এগ্রো সার্ভিসেস লিমিটেড এর ব্যানারে রংপুর বিভাগের চার জেলায় বিভিন্ন লোভনীয় প্যাকেজে টার্কি মুরগীর খামারী প্রজেক্ট ব্যবসা চালু করেন। এতে বিভিন্ন মেয়াদে প্রায় ১২শ’ খামারী অর্ধশত কোটি টাকার প্যাকেজ গ্রহণ করেন। নির্দিষ্ট মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পর স্বপ্নতরী কর্তৃপক্ষ টাকা ফেরত দিতে টালবাহানা করায় খামারীরা বিভিন্ন দপ্তরে হয়রানি ও প্রতারণার অভিযোগ করেন। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রতিবেদন তৈরি করতে গেলে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *