মিঠাপুকুরে মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

মিঠাপুকুরে মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

জুয়েল, মিঠাপুকুর প্রতিনিধিঃ দেশের প্রতি জেলায় ও উপজেলায় একটি করে মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ নির্মাণের অংশ হিসেবে মিঠাপুকুরে আজ রোববার দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়। প্রায় সাড়ে ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এইচ এন আশিকুর রহমান এমপি। তবে এসব মসজিদ শুধুমাত্র মসজিদই হবে না সেগুলো ‘ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে। আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত মসজিদ হবে এগুলো। “এই মসজিদে নারী পুরুষের জন্য আলাদা ওজু এবং নামাজের ব্যবস্থা থাকবে। মক্তব, গ্রন্থাগার,গবেষণা কক্ষ, কনফারেন্স রুম, ইমাম ও হাজীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা থাকবে সেখানে। সেইসাথে বিদেশী মুসুল্লিরা বা পর্যটকরা এলে তাদের থাকার ব্যবস্থা থাকবে।” একেকটি মসজিদের জন্য গড়ে ১৩ থেকে ১৬ কোটি টাকা করে খরচ হবে। আর এসব মসজিদ পুরোটাই হবে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত।” জেলা পর্যায়ের মসজিদগুলো হবে চারতলা বিশিষ্ট এবং উপজেলা পর্যায়ে হবে তিন তলা বিশিষ্ট। এসব মসজিদ নির্মাণের জন্য সৌদি সরকারের সাহায্যে অর্থায়নের কথা থাকলেও, একেকটি মসজিদ নির্মাণের জন্য ১৩ থেকে ১৬ কোটি টাকা। তা সবই সরকারের নিজস্ব তহবিল হতে খরচে করা হবে। একসাথে এত সংখ্যায় আধুনিক মসজিদ নির্মাণ একটি ইউনিক। “অনেক দেশে এরকম দৃষ্টিনন্দন একটা-দুইটা আইকনিক মসজিদ আছে। কিন্তু এখানে সবই একরকম হবে। দেখেই বোঝা যাবে যে এটা সেই বিশেষ মসিজদ। সারা বিশ্বে কোনও মুসলিম দেশে একসাথে এরকম কর্মযজ্ঞ শুরু হয়নি।” ৬ হাজার কোটি টাকার এই প্রকল্পের জেলা পর্যায়ে ৪ তলা ও উপজেলা পর্যায়ে ৩ তলা ভবন নির্মাণ করা হবে।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *